ভারতের সুর কড়া হতেই নতুন মানচিত্র নিয়ে পিছু হঠল নেপাল


নিজস্ব প্রতিবেদন: ভারত কড়া অবস্থান নিতেই সুর নীচে নামাল কাঠমান্ডু। দেশের নতুন মানচিত্র নিয়ে এক কদম পিছনেই হাঁটল নোপাল।

মনস সরোবর যাওয়ার জন্যে দুদেশের সীমান্ত ঘেঁসা একটি রাস্তা করছে ভারত। সেটি যাচ্ছে লিপুলেখ, কালাপানি, লিম্পিয়াধুয়ার ওপর দিয়ে। এখন ওইসব এলাকাকে নিজেদের ভূখণ্ড বলে দাবি করেছে নেপাল। এনিয়েই দুদেশের মধ্যে সম্পর্ক উত্তপ্ত হয়েছে। কয়েক দিন আগে ওইসব এলাকা নিয়ে ভারতের সঙ্গে যুদ্ধে যেতেও রাজি বলে একপ্রকার হুমকিই দিয়ে বসেছেন সেদেশের প্রতিরক্ষামন্ত্রী ঈশ্বর পোখরিওয়াল।

আরও পড়ুন-৩০ জুন পর্যন্ত বন্ধ রাজ্যের সব সরকারি স্কুল, তবে উচ্চমাধ্যমিক নির্দিষ্ট দিনেই 

এদিকে, ওই তিনটি জায়গাকে নিজেদের মানচিত্রে ঢোকাতে ইতিমধ্যেই একটি সংশোধিত মানচিত্র তৈরি করেছে কাঠমান্ডু। তার পার্লামেন্ট অনুমোদনও করেছে। কিন্তু এর জন্য সংবিধান সংশোধনের প্রয়োজন। ওই বিষয়টি নিয়েই বুধবার আলোচনা ছিল নোপালের সংসদে। তার শেষপর্যন্ত স্থগিদ রাখা হয়েছে।

দেশের ওই নতুন মানচিত্রটি গত সপ্তাহেই অনুমোদন করে নেপাল সংসদ। তার পরেই ভারেতর বিরুদ্ধে উত্তেজক বিবৃতি দিতে শুরু করে নেপাল। দুদিন আগেই নেপালের প্রতিরক্ষামন্ত্রী একটি সাক্ষাতকারে মন্তব্য করেছেন। নোপালের গোর্খারা ভারতের জন্য প্রাণ দিয়েছে। সীমান্ত সমস্যা নিয়ে ভারতীয় সেনাপ্রধান এখন চিনের ইন্ধনের দিকে ইঙ্গিত করছেন। এতে গোর্খা ভাবাবেগে আঘাত করা হয়েছে। ওই সমস্যা সামাধানে যুদ্ধও হতে পারে।

আরও পড়ুন-ফের একদফা বাড়ছে লকডাউনের মেয়াদ, নজরে দেশের ১১ শহর!

এদিকে, নেপালের নতুন মানচিত্র তৈরি নিয়ে ভারতের তরফে বিদেশ মন্ত্রকের মুখপাত্র অনুরাগ শ্রীবাস্তব বলেছেন, নেপালের এভাবে নিজেদের সীমানা বৃদ্ধি ভারত মেনে নেবে না।





Source link

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *