Tuesday, September 29

দরকার হলে সীমান্ত বিবাদ নিয়ে যুদ্ধও হবে, ভারতকে হুমকি নেপালের


নিজস্ব প্রতিবেদন: সেনাপ্রধান মনোজ মুকুন্দ নারাভানের মন্তব্য নিয়ে গোর্খাদের তাতানোর চেষ্টা করলেন নোপালের প্রতিরক্ষামন্ত্রী ঈশ্বর পোখলেল। কালাপানি নিয়ে যে বিবাদ দুদেশের মধ্যে তৈরি হয়েছে তাতে নেপালের পেছনে চিনের ইন্ধন রয়েছে বলে ইঙ্গিত করেছেন নারাভানে, এমনটাই মন্তব্য করেছে পোখরেল। তাঁর দাবি, ভারতীয় সেনাপ্রধান গোর্খাদের ভাবাবেগে আঘাত করেছেন। সমস্যা মেটাতে প্রয়োজনে যুদ্ধও করবে নেপালি সেনা।

আরও পড়ুন-শরদ পাওয়ারের মন্তব্যে জোটে সংকট মহারাষ্ট্রে! আসরে নামল শিবসেনা

সম্প্রতি দ্যা রাইজিং নেপাল-কে দেওয়া এক সাক্ষাতকারে পোখরেল বলেন, নারাভানে নেপালকে নিয়ে যে মন্তব্য করেছেন তাতে তিনি ঘুরিয়ে নেপালের পেছনে চিনের মদত থাকার কথা বলেছেন। এতে নেপালের গোর্খারা আহত। এটা এক ধরনের রাজনৈতিক মন্তব্য।

কৈলাশ মানস সরোবর যাওয়ার জন্য উত্তরাখণ্ড থেকে লিপুলেখ পাস পর্যন্ত একটি রাস্তা তৈরি করছে ভারত। সেই রাস্তা যাচ্ছে কালাপানি-র ওপর দিয়ে। নেপালের দাবি ওই জায়গা নেপালের। এনিয়েই বিবাদের সূত্রপাত। বিষয়টি সম্প্রতি মন্তব্য করেন সেনাপ্রধান।

এনিয়ে পোখরেল ওই সাক্ষাতকারে বলেন, নেপাল যখন ওই বিবাদ আলোচনার মাধ্যমে সমাধান করার চেষ্টা করছে তখন ভারতীয় সেনাপ্রধানের মন্তব্য অত্যন্ত অস্বস্থিকর। ভারতকে রক্ষা করার জন্য নোপালের বহু গোর্খা সেনা প্রাণ দিয়েছেন। তারা এখন দেশের মানুষের সামনে দাঁড়াতে পারবে না। সেনাপ্রধানের মতো একটি প্রফেশনাল জায়গায় থেকে ওই ধরনের মন্তব্য মানায় না।

আরও পড়ুন-‘টাকা নেই? টাকা নেই?… রাজ্যকে কেন্দ্রের দেওয়া ৩০৮৬ কোটির কোনও হিসেব নেই’

কী বলেছিলেন সেনাপ্রধান?

মানস সরোবর পর্যন্ত ৮০ কিলোমিটার লম্বা ওই রাস্তা তৈরিতে হওয়া বিবাদ নিয়ে নারাভানে সম্প্রতি বলেন, নেপালের রাষ্ট্রদূতের দাবি মহাকালী নদীর পূর্বপাড় পর্যন্ত নোপালের সীমানা। কিন্তু আমরা রাস্তা তৈরি করছি পশ্চিম পাড়ে। তার পরেও নেপাল কেন প্রতিবাদ করছে বুঝতে পারছি না। এইসব সমস্যা অন্য কারও হয়ে ওদের তৈরি করার সম্ভাবনা সবচেয়ে বেশি।





Source link

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *